Wednesday, June 29, 2022

কাজে বেরিয়েও দাঁড়িয়ে! জিপিএস-এর মাধ্যমে কলকাতা পুরসভার গাড়ির উপরে নজরদারি

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


#কলকাতা: ফিল্ডওয়ার্কেও কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে কড়া কলকাতা পুরসভা। কলকাতা পুরসভার গাড়িতে এবার নজরদারি কর্তৃপক্ষের। বর্ষার মরশুমে বারবারই অভিযোগ আসে নিকাশি নালার পরিষ্কারে গাফিলতি নিয়ে। নিকাশি বিভাগের সব গাড়িতেই ধাপে ধাপে বসবে জিপিএস। পুরসভায় বসেই দেখা যাবে কে কাজ করছে আর কেই বা বসে আছে!

কলকাতা পুরসভার অফিসগুলিতে কর্মসংস্কৃতি ফেরাতে নোটিশ দিয়েছেন কমিশনার বিনোদ কুমার। আচমকা পরিদর্শন করার ও পরামর্শ দিয়েছেন কমিশনার। কিন্তু পুরসভার ৫০ শতাংশ কাজই তো আর অফিসে বসে হয় না। বেশিরভাগ কাজ সেখানে ফিল্ড ওয়ার্ক। রাস্তাঘাটে নালা-নর্দমায় কাজ করেন ফিল্ড ওয়ার্কাররা। প্রায়শই অভিযোগ ওঠে গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে ও নিরাপদ আশ্রয়ে বসে থাকেন, কাজে ফাঁকি দেন একশ্রেণীর কর্মী। এ বার সেই দিনের অবসান হতে চলেছে। পুরসভার গাড়ি নিয়ে কোথায় যাচ্ছেন? কর্মীরা কী করছেন? গাড়ি দাঁড়িয়ে আছে! নাকি কাজ করছে? নাকি চলে ফিরে বেড়াচ্ছে ! সবটাই নজরদারিতে আসবে কলকাতা পুরসভা কর্তৃপক্ষের। নিকাশি বিভাগ দিয়ে শুরু। ধীরে ধীরে সব বিভাগেই জিপিএস ট্র্যাকিং শুরু করতে চলেছে কলকাতা পুরসভা। এর আগে নিকাশি বিভাগের গাড়িতে পোস্টার সাঁটানো হয়েছিল। গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকলে বা কাজে ফাঁকি দিলে নাগরিকরা সচেতন হয়ে জানান কলকাতা পুরসভাকে। বছরের পর বছর কেটে গেলেও সেই সচেতন নাগরিকের সন্ধান পায়নি পুরসভা। তাই এবার জিপিএস ট্র্যাকিং -ই হাতিয়ার।

 কলকাতা পুরসভার নিকাশি বিভাগের মেয়র পরিষদ তারক সিং বলেন, পোস্টার আবেদন জানানোর পরও নাগরিকদের কাছ থেকে সেভাবে সাড়া মেলেনি। তবে নজরদারি বাড়াতে কোথায় কোন গাড়ি কাজ করছে তা নিজের ঘরে বসেই দেখতে পারবো। প্রয়োজনে কোন গাড়ি দীর্ঘক্ষণ এক জায়গায় থাকলে তার উপর খোঁজখবর নিতে পারবেন আধিকারিকরা।

কলকাতা পুরসভার নিকাশি বিভাগের ২৪৫ গাড়ি রয়েছে। এর মধ্যে যে জেট-কাম-সাকশন রয়েছে ১৩টি । গালি পিট এমটিয়ার রয়েছে ২০টি। জেটিং মেশিন ২টি এবং ম্যানহোল ডিসিল্টিং ১৪৪টি ও পাওয়ার বাকেট ৫৫টি। এছাড়াও অন্যান্য গাড়ি রয়েছে।

মূলত  নিকাশি নালা পরিষ্কার ও নিকাশি নালার থেকে পলি তোলার কাজ করে এই গাড়িগুলো। ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল এই বছরে শহরের বিভিন্ন রাস্তা থেকে মোট পলি তোলা হয়েছিল এক লক্ষ ৭৭ হাজার ১১০ মেট্রিকটন। ২০১৫ থেকে ২০২০ সাল, এই পাঁচ বছরে পলি তোলার কাজের অনেকটাই গতি পায়। মোট পলি তোলার কাজ হয়েছিল ৬ লক্ষ ৯৯ হাজার ১০৯ মেট্রিক টন। গত দু’বছরে অর্থাৎ ২০২০ থেকে ২০২২ সাল, এই দুই বছরের মধ্যেই পলি তোলার কাজ হয়েছে তিন লক্ষ ৯২ হাজার ৬৪০ মেট্রিকটন। তবুও নানান জায়গায় অভিযোগ আসে। নিকাশি নালার পলি তোলার কাজে গিয়ে কলকাতা পুরসভার গাড়ি অযথা দাঁড়িয়ে থাকে কাজে ফাঁকি দেন কর্মীরা। এ বার তাই গাড়িতে গাড়িতে জিপিএস ট্র্যাকিং বসানোর সিদ্ধান্ত কলকাতা পুরসভার।

আরও পড়ুন – অগ্নিপথ প্রকল্প ফিরিয়ে নেওয়ার প্রশ্নই নেই, আন্দোলনকারীদের আস্থা রাখার বার্তা অজিত দোভালের

গাড়িতে তো জিপিএস বসানোর কাজ হয়েছে।  সেই গাড়িগুলো কী ভাবে ট্র্যাক হচ্ছে কলকাতা পুরসভায়? আপাতত কলকাতা পুরসভার কমিশনার, পুরসভার মেয়র এবং সংশ্লিষ্ট বিভাগের মেয়র পরিষদের ঘরে এলইডি স্ক্রিনে ফুটে উঠবে জিপিএস ট্র্যাকিং-এর চিত্র। একই ভাবে এই জিপিএস ট্র্যাকিং এর হাল-হকিকত জানতে সংশ্লিষ্ট বিভাগের ডিজির ঘরেও থাকবে এলইডি স্ক্রিন। চলুন সেই স্ক্রিনেই দেখা যাক কী ভাবে কাজ করছে জিপিএস ট্র্যাকিং।  কলকাতা পুরসভার আধিকারিকরা কী ভাবে সেই ট্র্যাকিং সিস্টেম খতিয়ে দেখছেন।

কী ভাবে কাজ করছে জিপিএস ট্র্যাকিং।

★এলইডি স্ক্রিনে ফুটে উঠবে চার রকম ক্যাটাগরি।

★সবুজ রং মানেই গাড়ি কাজ করছে।

★ হলুদ রং মানে গাড়ি এক জায়গা থেকে আরেক জায়গায় মুভ করছে

★ লাল রং মানে গাড়িটি দাঁড়িয়ে আছে

★ কোন রং নেই মানে গাড়িটির জিপিএস এখনও অন হয়নি।

★ লাল রং দেখলেই সংশ্লিষ্ট আধিকারিকরা চালক বা কর্মীর ফোন নম্বরে ফোন করে জানতে চাইবেন কেন দাঁড়িয়ে আছে গাড়িটি?

★ এছাড়াও প্রতিদিন ফিল্ডের রিপোর্টের সঙ্গে মিলিয়ে দেখা হবে জিপিএস ট্র্যাকিং এর রিপোর্ট।

আরও পড়ুন- রাষ্ট্রপতি পদে বিরোধী প্রার্থী হতে রাজি, সম্মতি জানালেন যশবন্ত! ধন্যবাদ মমতাকে

নিকাশি বিভাগের ২৪৫ গাড়ির মধ্যে আপাতত ৮১টি গাড়িতে জিপিএস ট্র্যাকিং বসানো হয়েছে। ধীরে ধীরে সব গাড়িতেই বসবে জিপিএস ট্র্যাকিং। শুধুমাত্র নিকাশি বিভাগ নয়, এর পর জঞ্জাল সাফাই থেকে পানীয় জল সরবরাহ-সব বিভাগের গাড়িতেই জিপিএস বসানোর কাজ শুরু হচ্ছে।

Biswajit Saha

Published by:Uddalak B

First published:

Tags: KMC



Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img