Wednesday, June 29, 2022

চাকরির পরীক্ষায় সাদা খাতা জমায় কড়া নজর

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


পার্থসারথি সেনগুপ্ত

নিয়োগ-পরীক্ষায় ‘সাদা খাতা’ জমা রুখতে শুরু হল কড়া নজরদারি।

চাকরির পরীক্ষায় উত্তরপত্রে কোনও কিছুই না লিখে ‘সাদা খাতা’ জমা দিয়ে হল ছাড়লেন কারা, রাখা হবে সেই খতিয়ান। কারণ, পরীক্ষার হলে কোনও কোনও প্রার্থীর জমা দেওয়া সাদা খাতায় পরে দুষ্টচক্রের মদতে কারচুপি করে নম্বর বাড়ানোর একাধিক ঘটনা নজরে এসেছে। তা রুখতে রাজ্য পাবলিক সার্ভিস কমিশন চালু করল নয়া নিয়ম। পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে সাদা খাতা জমা দিয়ে বেরোচ্ছেন কোন কোন প্রার্থী, নির্দিষ্ট ফর্মে তালিকা বানিয়ে কর্তব্যরত ইনভিজিলেটরদের তা কমিশনে জমা করার নিয়ম রবিবার থেকেই চালু করেছে কমিশন।
Indian Army Recruitment 2022: বিতর্কে অগ্নিপথ, আজই শুরু অগ্নিবীরদের রেজিস্ট্রেশন
রবিবার ছিল ডব্লিউবিসিএস (এগজিকিউটিভ ২০২২)-এর প্রিলিমের পরীক্ষা। তাতে ইনভিজিলেটরদের জন্যে লিখিত নির্দেশাবলির ১২ নম্বর অনুচ্ছেদে বলা হয়, ”কোনও পরীক্ষার্থী ব্ল্যাঙ্ক (BLANK) ওএমআর উত্তরপত্র জমা করলে সেটির পরিপ্রেক্ষিতে দশ নম্বর প্রোফর্মা যথাযথ ভাবে পূরণ করতে হবে।” কমিশনের এক কর্তার বক্তব্য, ”যদি কোনও পরীক্ষার্থী সাদা উত্তরপত্র জমা দিয়ে বেরোতে চান, তবে আমরা ঠেকানোর ব্যবস্থা করেছি। পরীক্ষার হলেই ইনভিজিলেটর সঙ্গে সঙ্গে নির্দিষ্ট ফর্মে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীর নাম, রোল নম্বর ইত্যাদি জরুরি তথ্য নথিভুক্ত করবেন। ফলে কোনও দুষ্টচক্র পরে কারচুপি করে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার সুযোগ পাবে না।” রবিবার পরীক্ষাতে নজরদারিও ছিল কড়া। পশ্চিম পুটিয়ারির এক পরীক্ষাকেন্দ্রের প্রার্থীর কথায়, ”ইনভিজিলেটর ঘুরে ঘুরে দেখেছেন আমরা লিখছি কিনা। উত্তরপত্র জমা নেওয়ার সময়েও খুঁটিয়ে দেখেছেন, সেটা ব্ল্যাঙ্ক কিনা।”
বিদ্যুৎ উন্নয়ন নিগমে নেওয়া হচ্ছে 60 টেকনিশিয়ান, দ্রুত আবেদন করুন
হালে নিয়োগ পরীক্ষায় দুর্নীতির তদন্তে গোটা রাজ্য সরগরম ‘সাদা খাতা’র কিস্যায়। যেমন, স্কুল সার্ভিস কমিশনের পরীক্ষায় বিধিবহির্ভূত ভাবে শিক্ষক নিয়োগের তদন্তে উত্তর ২৪ পরগনায় বার বার উঠে এসেছে এক ব্যক্তির নাম। অভিযোগ, প্রভূত অর্থের বিনিময়ে ওই ব্যক্তি কারচুপি করে বহু প্রার্থীর চাকরির বন্দোবস্ত করেছেন। সূত্রের খবর, যে সব প্রার্থী তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করতেন, তাঁদের আগেভাগে বলে দেওয়া হতো, উত্তরপত্রে একটি শব্দও না লিখে ‘ব্ল্যাঙ্ক’ জমা দিতে।
Indian Army Recruitment 2022: দশম শ্রেণিতে পাশ করেই কাজ করুন ভারতীয় সেনাবাহিনীতে, জানুন কীভাবে!
একই ভাবে রাজ্য পাবলিক সার্ভিস কমিশনের ২০১৭ সালের বিসিএস পরীক্ষায় এক পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে ইংরেজি আবশ্যিকে সাদা খাতা জমা দিয়ে জাদুবলে ১৬২ নম্বর পাওয়ার গুরুতর অভিযোগ উঠেছিল। পরে ২০২০ সালে ওই প্রার্থীর করা আরটিআই আবেদনের উত্তরে কমিশনই জানিয়েছিল, তিনি প্রিলিমিনারিতে ২০০-র মধ্যে সাকুল্যে ৬.৮৬৫ শতাংশ পেয়ে ফেল করেছিলেন। তার পরেও মেনসে নাকি সর্বোচ্চ নম্বর পান ওই প্রার্থী! এখন উত্তরবঙ্গে একটি জেলায় তিনি বিডিও। বিসিএসে এহেন কেলেঙ্কারির অভিযোগে হাইকোর্টে দু’টি মামলাও চলছে। এই প্রেক্ষিতেই কারচুপি ঠেকাতে কোমর বেঁধে নামল কমিশন।



Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img