Saturday, December 3, 2022

ছাঁটাই হওয়া সহকর্মীদের সাহায্য! চাকরি গেল এই টুইটার কর্মীর

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছে আর্থিক মন্দার কালো মেঘ। এই পরিস্থিতিতে খরচ কমাতে একের পর এক সংস্থা তাঁদের কর্মীদের ছাঁটাই করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে ফেসবুক, টুইটার ও মাইক্রোসফটের মতো বেশ কিছু প্রথমসারির তথ্য ও প্রযুক্তি সংস্থা। আর এবার এক গুরুতর অভিযোগ উঠল টুইটারের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি এই সংস্থার দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন Tesla ও SpaceX-এর মালিক এলন মাস্ক। আর দায়িত্ব গ্রহণ করার পর থেকেই বেশ কয়েক হাজার কর্মী ছাঁটাই করেছে এই সংস্থা। আর এবার ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের সাহায্য করার জন্য এক ইঞ্জিনিয়ারকে ছাঁটাই করার অভিযোগ উঠল এক টুইটারের বিরুদ্ধে। ছাঁটাই হওয়ার আশঙ্কায় একটি সফটওয়্যার তৈরি করেন সেই ইঞ্জিনিয়ার। ছাঁটাই হওয়া কর্মীরা যাতে তাঁদের গুরুত্বপূর্ণ নথি একটি জায়গায় সেভ করতে পারেন, সেই কারণেই এই সফটওয়্যারটি তিনি তৈরি করেন দাবি করেছেন এমানুয়েল কর্নেট নামক সেই ইঞ্জিনিয়ার।

এই বিষয়টি নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল লেবার রিলেশনস বোর্ডের কাছে সোমবার অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। টুইটারের ইন্টার্নাল মেসেজিং চ্যানেলে এই সফটওয়্যারটি শেয়ার করেছিলেন তিনি। নিজেকে নির্দোষ দাবি করে তিনি জানিয়েছেন যে তিনি ‘Protected Activity’-র সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মার্কিন লেবার আইন অনুযায়ী, ‘Protected Activity’ সেসকল কাজকেই বোঝায়, যেগুলি করলে নিয়োগকারী সংস্থা কর্মীর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারবে না।

তবে, বিষয়টি নিয়ে টুইটারের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি বলেই খবর। টুইটারের সান ফ্রানসিসকোর অফিসে কর্মরত ছিলেন তিনি। গত 1 নভেম্বর তাঁকে এই কাজের জন্য ছাঁটাই করা হয় বলেই দাবি করেছেন কর্নেট। ইতিমধ্যেই সংস্থার 50 শতাংশ কর্মীকে ছাঁটাই করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে এই সংস্থা। শোনা যাচ্ছে যে মোট 7,500 কর্মীকে ছাঁটাই করেছে এই সংস্থা। খরচ কমিয়ে লাভ বাড়াতেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে Twitter।

Twitter Job cut: “ভুল করে ছাঁটাই!” কর্মীদের অফিসে ফিরতে অনুরোধ টুইটারের
এই ছাঁটাইয়ের বিরুদ্ধে ক্যালিফোর্নিয়ার ফেডারাল কোর্টে মামলা করেছেন কর্নেট ও ছাঁটাই হওয়া আরও চার কর্মী। তাঁদের অভিযোগ, আইন অনুযায়ী ছাঁটাই করার আগে 60 দিনের নোটিশ দিতে হয় কর্মীদের। এক্ষেত্রে সেই আইন মানা হয়নি বলেই অভিযোগ টুইটারের বিরুদ্ধে। গত শুক্রবারই একাধিক টুইটে মাস্ক জানান যে ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের 90দিনের বেতন প্রদান করা হয় সংস্থার তরফে। ফলে লেবার আইনের সব নিয়ম মানা হয়েছে বলেই দাবি করেন তিনি।

Facebook Job cut: আর্থিক মন্দার জের! বুধবার থেকেই কর্মী ছাঁটাই শুরু করল ফেসবুক
নিজের অভিযোগে কর্নেট বলেন যে টুইটারে কর্মীদের ছাঁটাই করা হবে, এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই তিনি একটি গুগল ক্রোম এক্সটেনশন তৈরি করেছিলেন যেখানে কর্মীরা তাঁদের টুইটার আকাউন্ট থেকে ইমেল ডাউনলোড করে রাখতে পারবেন। যে দিন এই এক্সটেনশন তৈরি করে টুইটারের ইন্টার্নাল মেসেজিং চ্যানেলে এটি তিনি পোস্ট করেন সেদিনই তাঁকে ছাঁটাই করা হয় বলেই তাঁর অভিযোগ।



Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img