Saturday, December 3, 2022

ঘনিষ্ঠ মুহূর্তে নগ্ন শরীরে ৫০ টিউব আঠা! পরকীয়ারত জুটিকে খুনে ধৃত তান্ত্রিক

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


উদয়পুর: এক প্রেমিক জুটিকে হত্যার অভিযোগে সোমবার উদয়পুরে গ্রেফতার করা হয়েছে এক তান্ত্রিককে৷ গত ১৮ নভেম্বর স্থানীয় জঙ্গল থেকে তাঁদের নগ্ন ছিন্নভিন্ন দেহ উদ্ধার করা হয়েছে৷ প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই যুগলের মধ্যে পুরুষের যৌনাঙ্গও খণ্ডিত করা ছিল৷

৩০ বছর বয়সি প্রাক্তন সরকারি স্কুলের শিক্ষক এবং তাঁর ২৮ বছরের প্রেমিকার নিথর দেহ উদ্ধার হয় গোগুন্ডা থানার কেলাবাওড়ি জঙ্গলে৷ জানা গিয়েছে তাঁরা দু’জনেই বিবাহিত ছিলেন অন্য কারওর সঙ্গে৷ বিবাহিত অবস্থায় তাঁরা পরকীয়ার সম্পর্কে ছিলেন৷ প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশের ধারণা, এটা অনার কিলিং বা সম্মান রক্ষার্থে খুন৷ প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতে খুনের আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তদন্তকারীরা৷

তদন্ত শুরু করে অন্তত ২০০ জনকে জেরা করেছে পুলিশ৷ খতিয়ে দেখা হয় প্রায় ৫০ টি জায়গার সিসিটিভি ফুটেজ৷ এই সব প্রমাণের উপর ভিত্তি করে পুলিশ গ্রেফতার করেছে ভালেশ কুমার নামে অভিযুক্ত তান্ত্রিককে৷ পুলিশের দাবি, সে জেরায় তার অপরাধ স্বীকার করেছে৷

আরও পড়ুন :  শীতের শুরুতে মুম্বই চিড়িয়াখানায় জন্ম ৩ পেঙ্গুইন শাবকের

তদন্তকারীরা জানিয়েছেন নিহত তরুণ ও তরুণী ওই তান্ত্রিকের পূর্ব পরিচিত ছিলেন৷ তাঁদের মধ্যে সম্পর্কের কথাও ভালেশ কুমার জানত৷ পুলিশের দাবি, তরুণের স্ত্রীকে এই পরকীয়ার কথা জানিয়ে দেয় তান্ত্রিকই৷ তার জেরে তীব্র সাংসারিক অশান্তির মধ্যেও পড়তে হয় ওই তরুণকে৷ এই ঘটনায় তিনি ও তাঁর প্রেমিকা তান্ত্রিককে দোষারোপও করেন৷ পুলিশের ধারণা, ভবিষ্যতে ঝামেলা ও নিগ্রহের আশঙ্কা এড়াতে প্রেমিক জুটিকে খুন করার চক্রান্ত করে অভিযুক্ত তান্ত্রিক৷

পরিকল্পনা অনুযায়ী নামী সংস্থার পঞ্চাশ টিউব আঠা কেনে ওই তান্ত্রিক৷ তার পর তা সংগ্রহ করা হয় একটি বোতলে৷ এর পর ওই প্রেমিক জুটিকে সে ডেকে নিয়ে যায় এক নির্জন স্থানে৷ তার পর তাঁদের একান্তে রেখে চলে যাওয়ার ভান করে ওই তান্ত্রিক৷ তার অনুপস্থিতিতে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন ওই যুগল৷

আরও পড়ুন : হাড়হিম করা ঘটনা! ওড়িশায় মৌমাছির কামড় খেয়ে মৃত্যু গ্রামবাসীর

এই সুযোগেরই অপেক্ষায় ছিল তান্ত্রিক ভালেশ কুমার৷ পুলিশের দাবি, সে জেরায় জানিয়েছেন ঘনিষ্ঠ অবস্থায় ওই জুটির শরীরে সে ঢেলে দেয় ৫০ টিউব জোরদার আঠা৷ বিপদ বুঝতে পেরে নিজেদের সরিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে ওই জুটি৷ কিন্তু তত ক্ষণে তাঁদের চামড়া জুড়ে গিয়েছে৷ তাঁরা যত নিজেদের ছাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা করতে থাকেন তত তাঁদের চামড়া খুলে আসতে থাকে৷ মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয় গোপনাঙ্গ৷ অভিযোগ এই করুণ পরিস্থিতিতেই তান্ত্রিক গলার নলি কেটে খুন করে প্রাক্তন শিক্ষককে৷ তাঁর সঙ্গিনীকে হত্যা করা হয় শ্বাসরোধ করে৷

পুলিশি জেরায় তান্ত্রিক জানিয়েছে সে ঘনিষ্ঠ অবস্থাতেই ওই জুটিকে খুন করতে চেয়েছিল৷ কারণ তার উদ্দেশ্য ছিল তাদের পরকীয়া প্রকাশ্যে আনা৷

Published by:Arpita Roy Chowdhury

First published:

Tags: Murder, Udaipur



Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img