Sunday, February 5, 2023

British PM Rishi Sunak Apology: নজিরবিহীন ভাবে ক্ষমা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী! এড়ালেন মোটা জরিমানা…

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


জি ২৪ ঘণ্টা ডিজিটাল ব্যুরো: ক্ষমা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী! এড়ালেন মোটা জরিমানা! প্রধানমন্ত্রীর মতো পদাধিকারী ব্যক্তির ক্ষমা চাওয়ার ঘটনা উপমহাদেশীয় দেশগুলিতে কল্পনা করা কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। ঘটনাটি ঘটেছে ব্রিটেনে। ক্ষমা চেয়েছেন ব্রিটেনের ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক।   

কেন ক্ষমা চাইলেন তিনি?

আরও পড়ুন: Nude Selfies: ফেসবুকে এবার পোস্ট হবে নগ্ন সেলফিও! ব্যান উঠল ফ্রি নিপল ক্যাম্পেইনের…

চলন্ত গাড়িতে সাময়িক সিটবেল্ট সরানোর জন্য ক্ষমা চেয়েছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। তিনি এটিকে ‘ব্রিফ এরর অফ জাজমেন্ট’ বলে উল্লেখ করেছেন। 

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের মুখপাত্র বলেন, গাড়িতে থাকাকালীন সুনাক অল্প সময়ের জন্য তাঁর সিটবেল্ট সরিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করেছেন, তিনি এটি ভুল করেছেন।

ঠিক কী ঘটেছিল?

আরও পড়ুন: Solitary Waves Around Mars: ভয়? মঙ্গলের চারপাশে এ কী অলৌকিক তরঙ্গের স্রোত! বিস্ময়ে বিমূঢ় বিজ্ঞানীরা…

ঋষি সুনাক গতকাল, বৃহস্পতিবার গাড়িতে করে উত্তর-পশ্চিম ইংল্যান্ডের এক গন্তব্যে যান। সেই সময়ে চলন্ত গাড়িতে তিনি অল্প সময়ের জন্য তাঁর সিটবেল্টটি সরিয়েছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়ার জন্য একটি ভিডিয়ো তোলা হচ্ছিল। সেজন্যই তিনি তাঁর সিটবেল্টটি সাময়িক সরিয়েছিলেন। তবে, বিষয়টি নিয়ে তিনি পরে ভেবে দেখেন যে, সুরক্ষা বা নিরাপত্তার দিক থেকে এটি ঠিক হয়নি। তাঁর বিবেচনায় ত্রুটি হয়েছে স্বীকার করে তাই ক্ষমা চান তিনি।

কেন এই সচেতনতা? 

ব্রিটেনে আসলে যাত্রীরা গাড়িতে থাকাকালীন সিটবেল্ট না পরলে বা খুলে ফেললে তাঁদের জরিমানা দিতে হয়। সঙ্গে সঙ্গে ১০০ পাউন্ড জরিমানা হতে পারে। আর যদি এ-সংক্রান্ত কোনও মামলা আদালতে যায়, তা হলে জরিমানার পরিমাণ ৫০০ পাউন্ড পর্যন্ত হতে পারে! তাই এদেশে সিটবেল্ট পরাটা আবশ্যিক এবং কড়া নিয়ে পর্যবসিত। যা আসলে রোড সেফটির দিক থেকে কাম্যই।

১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের ওই মুখপাত্র সুনাকের ঘটনার সূত্রে আরও বলেন যে, প্রধানমন্ত্রী বিশ্বাস করেন, প্রত্যেকেরই সিটবেল্ট পরা উচিত।

উপমহাদেশের নিরাপত্তাসচেতনতা ব্রিটেনের মতো নয়, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমা চাওয়ার মতো ঘটনাও এদেশের ওই স্তরের নেতাদের থেকে তেমন লভ্য নয়, কিন্তু একটি বিষয়ে দারুণ মিল। তা হল রাজনীতির জল ঘোলা করা। সুনাকের এই অনিচ্ছাকৃত ভুলকে মোটেই অবজ্ঞা করেননি বিরোধী দলের নেতারা। লেবার পার্টির পক্ষ থেকে সুনাকের সমালোচনা করে বলা হয়েছে– কীভাবে সিটবেল্ট, ডেবিট কার্ড, ট্রেন পরিষেবা ব্যবহার করতে হয়, কীভাবে অর্থনীতি ও দেশ পরিচালনা করতে হয়, তার কিছুই সুনাক জানেন না। তাঁর এই না-জানার তালিকাটা দিন-দিন বাড়ছে!

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App) 





Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img