Sunday, February 5, 2023

শিউরে ওঠার মতো ঘটনা, দ্বিতীয় স্ত্রী,ছেলে, মেয়েকে খুন করে মাটিতে পুঁতে রোজ কাজ!

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


#ভোপাল : মধ্যপ্রদেশ থেকে এক মারাত্মক খবর সামনে এসেছে৷ যা শুনে শিউরে উঠছেন মানুষজন৷  এক স্বামী নিজের হাতে তার স্ত্রী ও  দুই সন্তানকে কুড়ুল দিয়ে কুপিয়ে খুন করে ফেলেছে৷ এরপর নিজে এই খুনের হাত থেকে নিজেকে বাঁচানোর জন্য তিনটি শবদেহই মাটির তলায় পুঁতে দেয়৷ তিনটি খুনের এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা শহরকে ৮ কিলোমিটার দূরে বিন্ধ্যবাসিনী কলোনিতে ঘটেছে৷

অভিযুক্তের এটা দ্বিতীয় স্ত্রী ছিল৷ পারিবারিক ঝগড়ার থেকে এইভাবে নিজের স্ত্রী ও সন্তানদের খুন করে ফেলে অভিযুক্ত৷ অভি়ুক্ত রেলে গ্যাংম্যান ছিল৷ এইভাবে নৃশংস খুন করার পর সে নিজের রোজকার কাজে ব্যস্ত হয়ে পড়ে৷ পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে৷ শবদেহ উদ্ধার করে তা পোস্টমর্টেমের জন্য তা পাঠিয়ে দিয়েছে৷

পুলিশের মত অনুযায়ী লোকে ডিডি নগর থানায় এই ঘটনার সূচনা দেয়৷ অভিযুক্ত সোনু তলবাড়ের ঘর থেকে দুর্গন্ধ আসছিল৷ তার পরিবারের লোকজনকে প্রায় দেড়মাস ধরে দেখতে পাওয়া যাচ্ছিল না৷ খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়৷ এরপরেই শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ৷ স্থানীয় বাসিন্দা ও পরিচিতরা সোনুকে নিয়েই সন্দেহের কথা বলেন৷ পুলিশ অভিযুক্তের বাড়িতে খননকার্য চালায় এরপরেই সামনে আসে চরম নৃশংসতার ছবি৷ সেখানে তিনটি লাশ মাটিতে পোঁতা ছিল৷

আরও পড়ুন –  Weather Update: ঘূর্ণাবর্তে জীবন নরক, বৃষ্টি-তুষারপাত,রাজ্যে রাজ্যে তছনছ, কলকাতার ওয়েদার কেমন

এটা সোনুর দ্বিতীয় স্ত্রী ছিল৷ সাত বছরের ছেলে ও ৪ বছরের মেয়েকেও মেরে কুড়ুল দিয়ে কেটে মাটিতে পুঁতে দিয়েছিল অভিযুক্ত৷

আরও পড়ুন –  ঠিক যেন মেলবোর্ন-সানফ্রান্সিসকো, কলকাতার রাস্তায় কি এবার চলবে ট্রলিবাস

কড়া জিজ্ঞাসাবাদের মুখে ভেঙে পড়ে অভিযুক্ত

পুলিশ শবদেব উদ্ধার করে তা পোস্টমর্টেমের জন্য পাঠিয়ে দিয়েছে৷  এই হত্যাকাণ্ডের পরেও সোনুর কিছু প্রভাব পড়েনি৷ সে নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছিল৷ কিন্তু পরিচিতরা তাকে সন্দেহ করে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে৷ পুলিশ সোনুকে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করে৷ অভিযুক্ত পুলিশকে বিভিন্ন ভুল পথে পরিচালনা করে৷ পুলিশের কড়া জিজ্ঞাসাবাদের পরে সে ভেঙে পড়ে৷ পুলিশকে সমস্ত সত্যি বলে দেয় সে৷  সে বলেছে তার ও তার স্ত্রী-র মধ্যে দিনরাত ঝগড়া হত৷ সে রেগে গিয়ে নিজের স্ত্রী ও শিশুকে মেরে ফেলে৷

পুলিশ এরপর শবদেহগুলির ডিএনএ টেস্ট করাবে৷ অভিযুক্ত নিজের বন্ধুর সাহায্য নিয়ে শবদেহগুলি মাটির তলায় পুঁতে দেয়৷ পুলিশ অভিযুক্তের বন্ধুদের গ্রেফতার করে নেয়৷ অভিযুক্ত স্বামী নিজের প্রথম স্ত্রীকেও খুঁজছিল খুন করার জন্য, কিন্তু সে তাঁকে খুঁজে পায়নি৷

Published by:Debalina Datta

First published:

Tags: Crime, Madhya Pradesh



Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img