Sunday, February 5, 2023

৭ সন্তানের বাবা, পালাল শালীকে নিয়ে,আত্মীয়রা জুতোর মালা পরিয়ে খাইয়ে দিল মূত্র

- Advertisement -spot_img
- Advertisement -spot_img


#নয়াদিল্লি: হরিয়ানার কর্নাল জেলায় একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা সামনে এসেছে। এক ব্যক্তিকে নির্দয়ভাবে মারধর করা হয়। এমনকি  ওই ব্যক্তিকে প্রস্রাব পর্যন্ত পান করানো হত৷  এতটাই পাবলিক রেগে ছিল তাদের অত্যাচার থার্ড ডিগ্রি অবধি পৌঁছে যায়৷

জানা গেছে, ঘটনাটি কর্নালের ঘারুন্ডার বলহেদা গ্রামের। এখানে ওই ব্যক্তিকে তার আত্মীয়রা অপহরণ করে থার্ড ডিগ্রি নির্যাতন করে। এক ডজনেরও বেশি লোক ৩৫ বছর বয়সী হারুনকে  অমানবিক নির্যাতন করে। হারুনের হয়রানির ভিডিওটিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে হারুনের গলায় জুতার মালা দেখা যাচ্ছে এবং তাকে মারধর করা হচ্ছে। এভাবে যাকে টর্চার করা হয় সেও অবশ্য একেবারে নিষ্পাপ নয়৷  সে তার শালিকে অপহরণ করে৷

বলা হচ্ছে, বলহেদা গ্রামের বাসিন্দা ৩৫ বছর বয়সী হারুন সাত সন্তানের বাবা এবং কিছুদিন আগে  সে বিবাহিত শ্যালিকাকে নিয়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা হারুনকে ঝারুন্দা থেকে তুলে তাদের কাছে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ভুক্তভোগী হারুন জানান, এখানে এক ডজনেরও বেশি লোক তাকে বেধড়ক মারধর করে পাশাপাশি মানসিক টর্চার করে৷

আরও পড়ুন –  Rohit Sharma Century: ফিরলেন হিটম্যান, ৩ বছরের অপেক্ষার অবসান, ঝকঝকে শতরান রোহিতের

থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে

হারুনের অভিযোগ, গলায় জুতার মালা পরিয়ে দিয়ে তাকে প্রস্রাব পান করানো হয়েছিল এবং নানাভাবে নির্যাতন করা হয়। হারুন বিচার দাবি করেছেন। গ্রামের ব্যক্তির সঙ্গে এই অমানবিক ঘটনার পর বলহেদা গ্রামে মান্দারিন মুসলিম সমাজের এক সভা অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে হারুনের সঙ্গে ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানো হয়।

গ্রামবাসীরা জানায়, হারুন তার শ্যালককে তাড়িয়ে দিয়েছে। এই অপরাধের জন্য তারই আইনগত শাস্তি হওয়া উচিত ছিল, কিন্তু কিছু লোক তাদের আদালত বসিয়ে তাকে অপমান করেছে এবং তার ভিডিও ভাইরাল করেছে। একইসঙ্গে এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগও করা হয়েছে।

Published by:Debalina Datta

First published:

Tags: Viral, Viral Video



Source link

- Advertisement -spot_img

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest news
- Advertisement -spot_img
Related news
- Advertisement -spot_img